Tag: গাদ্দাফি

কূটনৈতিক ব্যাগে পাঠানো হতো : বিশ্বজুড়ে লিবীয় দূতাবাসে অস্ত্র লুকিয়ে রেখেছিলেন গাদ্দাফি

সূত্র: লিবিয়ার ক্ষমতাচ্যুত ও নিহত শাসক মুয়াম্মার গাদ্দাফির সরকার বিশ্বের বিভিন্ন দেশে লিবিয়ার দূতাবাসগুলোতে গোপন অস্ত্রের মজুদ গড়ে তোলার কার্যক্রম চালাচ্ছিল। পিস্তল, গ্রেনেড ও বোমা তৈরির সরঞ্জামসহ এসব অস্ত্র কূটনৈতিক ব্যাগে ভরে পাঠানো হতো। বৃহস্পতিবার লিবিয়ার নতুন সরকারের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এসব কথা জানিয়েছেন।

অস্ত্রগুলো বিদেশে চলে যাওয়া লিবিয়ার ভিন্নমতাবলম্বীদের হত্যার উদ্দেশে অথবা দূতাবাস সংশ্লিষ্ট দেশের বিরুদ্ধে অভিযানে ব্যবহার করার লক্ষ্যে নেয়া হচ্ছিলো বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বিস্তারিত →

গাদ্দাফির খুনিদের বিচারের অঙ্গীকার এনটিসিরসোমবার আনুষ্ঠানিকভাবে শেষ হচ্ছে লিবিয়া অভিযান

সূত্র: লিবিয়ার সাবেক নেতা কর্নেল মুয়াম্মার গাদ্দাফির হত্যাকারীদের বিচারের অঙ্গীকার করেছে জাতীয় অন্তর্বর্তী পরিষদ (এনটিসি)। গত বৃহস্পতিবার এনটিসির নেতারা এ ঘোষণা দেন।

এদিকে আগামী সোমবার থেকে লিবিয়ায় আন্তর্জাতিক বাহিনীর অভিযান সমাপ্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ। এ বিষয়ে গত বৃহস্পতিবার নিরাপত্তা পরিষদে ভোটাভুটি হয়েছে। একই দিন ন্যাটো বাহিনীও আনুষ্ঠানিকভাবে লিবিয়া অভিযান শেষ করবে বলে ঘোষণা দিয়েছে। আরো কিছুদিন থাকার ব্যাপারে এনটিসির অনুরোধ সত্ত্বেও ন্যাটো জোট লিবিয়া ত্যাগের সিদ্ধান্ত নিল।

বিস্তারিত →

 শেষ সময়ে গাদ্দাফি বই পড়তেন, চা বানাতেন

সূত্র: জীবনের শেষ দিনগুলোতে সির্ত শহরের একস্থান থেকে অন্য স্থানে পালিয়ে বেড়ান লিবীয় নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফি। চোখের সামনেই তাঁর শাসনব্যবস্থা ধূলিসাত্ হয়ে যাওয়ায় তিনি ছিলেন ক্ষুব্ধ ও বিষণ্ন।

গাদ্দাফির একসময়ের প্রধান দেহরক্ষীর দায়িত্ব পালনকারী মানসুর দাও এ কথা বলেছেন।
বিস্তারিত →

‘আমিই গাদ্দাফিকে হত্যা করেছি’

সূত্র: লিবিয়ার এক তরুণ যোদ্ধা দাবি করেছেন, তিনি লিবিয়ার ক্ষমতা-চ্যুত নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফিকে আটক এবং তাঁকে পরপর দুবার গুলি করেছেন। প্রথমে বাহুর নিচে, এরপর মাথায়। এতে গাদ্দাফি গুরুতর আহত হন। তবে সঙ্গে সঙ্গে নয়, আধা ঘণ্টা পর তাঁর মৃত্যু হয়।

সানাদ আল-সাদেক

সানাদ আল-সাদেক

ইন্টারনেটে প্রকাশিত এক ভিডিওচিত্রে হত্যাকারী হিসেবে দাবি করা এই তরুণের নাম সানাদ আল-সাদেক আল-ইউরিবি। তিনি বেনগাজির বাসিন্দা। গত শুক্রবার তিনি এই দাবি করেন। তাঁর এই দাবি গাদ্দাফি কীভাবে নিহত হয়েছেন, সে ব্যাপারে ক্রমবর্ধমান সন্দেহকে আরও উসকে দিয়েছে।
বিস্তারিত →

ন্যাটো হস্তক্ষেপ বন্ধ করতে হবে : গাদ্দাফির পরিণতি অন্যদের জন্য শিক্ষা : ইরান

সূত্র: ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রমিন মেহমানপারাস্ত বলেছেন, লিবিয়ার সাবেক নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফির মৃত্যু অন্য শাসকদের জন্য শিক্ষা হিসেবে কাজ করবে। তবে তিনি হুশিয়ারি দিয়ে বলেন, লিবিয়ায় মার্কিন নেতৃত্বাধীন ন্যাটো বাহিনীর হস্তক্ষেপ শিগগির বন্ধ করতে হবে।

লিবিয়ার ঘটনাবলীর ওপর গতকাল শেষ বেলায় দেয়া এক বিবৃতিতে তিনি ইরানের পক্ষ থেকে এ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। মেহমানপারাস্ত আরও বলেন, যেসব জাতিকে অধিকারবঞ্চিত করে রাখা হয়েছে সেসব জাতিও অন্য স্বৈরশাসকদের জন্য অপমানকর এবং অসম্মানজনক পরিণতি ডেকে আনবে।

বিস্তারিত →

গাদ্দাফির বিষয়ে হোয়াইট হাউজ এখনও অনিশ্চিত

সূত্র: লিবিয়ার ক্ষমতাচ্যুত নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফির আটক বা নিহত হওয়ার বিষয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমের ভিন্ন ভিন্ন প্রতিবেদন পর্যবেক্ষণ করছে হোয়াইট হাউজ।

যুক্তরাষ্ট্র কর্তৃপক্ষ গাদ্দাফির প্রকৃত অবস্থা সম্পর্কে এখনও নিশ্চিত হতে পারেনি।
বিস্তারিত →

গাদ্দাফির ছেলে সাদি এখন নাইজারে

সূত্র: লিবিয়ার ক্ষমতাচ্যুত পলাতক নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফির এক ছেলে সাদি গাদ্দাফি পার্শ্ববর্তী দেশ নাইজারে পৌঁছেছেন।নাইজার সরকারের মুখপাত্র ও আইনমন্ত্রী মারো আমাদোর বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, সাদি একটি গাড়িবহরে রয়েছেন। তার সঙ্গে আরো আটজন রয়েছেন।

তিনি আরো জানান, গাড়িবহরটি দেশটির রাজধানী নিয়ামির উদ্দেশে যাত্রা করেছে। মানবতার খাতিরে সাদি ও তার সঙ্গীদের নাইজারে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

বিস্তারিত →

বিদ্রোহীদের জাতীয় ঐক্যের আহ্বান : গাদ্দাফির বিরুদ্ধে ইন্টারপোলের পরোয়ানা

সূত্র: লিবিয়ার ক্ষমতাচ্যুত নেতা কর্নেল মুয়াম্মার গাদ্দাফির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে ইন্টারপোল। মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধের অভিযোগে শুক্রবার গাদ্দাফির বিরদ্ধে পরোয়ানার এ রেড নোটিশ জারি করেছে পুলিশের এই আন্তর্জাতিক সংগঠন।

গাদ্দাফি ছাড়াও রেড নোটিশ জারি করা হয়েছে তার ছেলে সাইফ আল গাদ্দাফি ও তার শ্যালক আবদুল্লাহ আল সেনুসির বিরুদ্ধেও। সেনুসি গাদ্দাফির শাসনামলে তার সরকারের গোয়েন্দা প্রধানের দায়িত্বে ছিলেন।

বিস্তারিত →

চূড়ান্ত হামলার নির্দেশের অপেক্ষায় বিদ্রোহী বাহিনী : গাদ্দাফির অনুগতদের সঙ্গে শান্তি আলোচনা ভেস্তে গেল

সূত্র: গাদ্দাফির অনুগত সেনাদের সঙ্গে লিবিয়ার বিদ্রোহী বাহিনীর শান্তি আলোচনা ভেস্তে গেছে। বানি ওয়ালিদ শহরে বিনা অস্ত্রে প্রবেশ করার শর্ত দিলে লিবিয়ান বিদ্রোহী বাহিনী তা প্রত্যাখ্যান করার পর পরই এ সমঝোতা ভেস্তে যায়। এখন বিদ্রোহী বাহিনী চূড়ান্ত হামলা করার জন্য নির্দেশের অপেক্ষায় রয়েছে।

বিদ্রোহীদের এক মুখপাত্র আবদুল্লাহ কানশিল, যিনি সমঝোতা আলোচনার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন, তিনি রোববারের শেষ দিকে সংবাদ মাধ্যমকে জানান, গাদ্দাফির প্রধান মুখপাত্র মুসা ইব্রাহিম বনি ওয়ালিদ শহর থেকে ৭০ কিলোমিটার দূরে বিদ্রোহীদের নিরাপত্তা চৌকি থেকে জানিয়েছে, শহরে প্রবেশ করতে হলে বিনা অস্ত্রে ঢুকতে হবে।

বিস্তারিত →

‘গাদ্দাফির আস্তানার খবর মিলেছে’

সূত্র: লিবিয়ার ন্যাশনাল ট্রানজিশনাল কাউন্সিলের (এনটিসি) সদস্যরা ক্ষমতাচ্যুৎ নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফির আস্তানার খবর পেয়েছে বলে আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

রোববার ত্রিপোলিতে এনটিসির সামরিক শাখার প্রধান আব্দুল হাকিম বেলহাজের বরাত দিয়ে আল-জাজিরা গাদ্দাফির অবস্থানের খোঁজ জানার কথা বললেও এ ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু জানায়নি।

বিস্তারিত →