সব খেলনা নিরাপদ নয়

সূত্র: দেখতে ভালো লাগলেই কিনে ফেলবেন না। ছোটদের হাতে খেলনা তুলে দেওয়ার আগে তা কতটা নিরাপদ দেখে নিনtoy

• প্রথমেই লেবেল দেখে নেবেন। এখানে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য থাকে। যেমন, কী ভাবে ব্যবহার করতে হবে, কত বছরের শিশুর খেলার উপযুক্ত খেলনাটি।

• খেয়ালে রাখবেন খেলনা বা তার অংশগুলো যেন শিশুর হাঁ-মুখের চেয়ে বড় হয়। শিশুদের খেলনা মুখে দেওয়াটা সহজাত প্রবণতা। আর তা গলায় আটকে বিপদ ডেকে আনা সময়ের অপেক্ষা।

• শূন্যে বস্তু ছুড়ে দেয়, এমন কোনো খেলনা ছোটদের হাতে তুলে দেওয়া ঠিক নয়। চোখে লেগে যাওয়া বা গলায় আটকানোর মতো ঘটনা ঘটে হামেশাই।

• তারস্বরে আওয়াজ হয় এমন খেলনা না কেনা ভাল। শোনার ক্ষমতায় গোলমাল হতে পারে।

• ‘স্টাফড টয়েজ’ ঠিক ভাবে সেলাই করা কি না বা শক্তপোক্ত আছে কি না দেখে নেবেন। ধোওয়া যায় যেন। সফ্ট টয়ে কোনো ফিতা বা দড়ি ঝুললে সেটা খুলে নেওয়া ভাল। বোতাম বা ঝকমকে কিছু আটকানো থাকলে সেটাও। আপনি না খুললে শিশু ঠিক খুলে মুখে পুরে দেবে।

• প্লাস্টিকের খেলনা হলে টেনেটুনে দেখে নেবেন, কোনো অংশ ভেঙে যাচ্ছে বা খুলে পড়ছে কি না।

• টক্সিক পদার্থ রয়েছে এমন খেলনা এড়ান। লেবেলে দেখে নিন ‘ননটক্সিক’ লেখা আছে কি না।

• বারো বছরের আগে ‘হবি কিট’ বা ‘কেমিস্ট্রি সেট’ দেবেন না।

• ইলেকট্রিক খেলনা হলে লেবেলে দেখে নিন ‘ইউএল অ্যাপ্রুভড’ লেখা আছে কি না।

• দোলনায় ঝোলানোর খেলনা থেকে লম্বা দড়ি বা তার যেন না ঝোলে। একটু বড় হলে অর্থাৎ খুব বেশি হাত-পা ছুড়লে এই ধরনের খেলনা সরিয়ে দেওয়াই ভাল।

Share and Enjoy:
  • Print
  • Digg
  • del.icio.us
  • Facebook
  • Yahoo! Buzz
  • Twitter
  • Google Buzz
  • LinkedIn

মন্তব্য করুন