রাজধানীতে সরকারদলীয় এমপির বাসায় ডাকাতি : ঢাকেশ্বরী মন্দিরে ২০০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুট

সূত্র: সরকারদলীয় এমপি শাহিদা তারেক দীপ্তির বাসায় দুর্ধর্ষ ডাকাতি হয়েছে। গতকাল ভোররাতে রাজধানীর পল্লবী আবাসিক এলাকার বাসায় ঢুকে সশস্ত্র ডাকাতরা এমপি, তার স্বামী এবং মেয়েকে জিম্মি করে লুটতারাজ চালায়।


ওই বাসা থেকে ৮০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও ৭ লাখ টাকাসহ প্রায় অর্ধকোটি টাকার মালামাল নিয়ে গেছে ডাকাতরা। এর আগে ডাকাত দল ওই ভবনের ওপর তলার ফ্ল্যাটে প্রয়াত মেজর (অব.) জিয়াউল হকের বাসা থেকে ৭ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও ৫৫ হাজার টাকা নিয়ে যায়।

সকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এমপি দীপ্তির বাসায় যান। ডাকাতদের গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়ে বরাবরের মতোই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি আগের চেয়ে এখন অনেক ভালো।

খবর পেয়ে সেখানে ছুটে যায় পুলিশ, র্যাব ও গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা। সিআইডির ক্রাইম সিন ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করে। এ ঘটনার পর গতকাল নগরীর বিভিন্ন স্থানে পুলিশ বিশেষ অভিযান চালায়।

অন্যদিকে ঢাকেশ্বরী মন্দিরে ২০০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, রুপার অলঙ্কার এবং ৫ লাখ টাকাসহ প্রায় সোয়া এক কোটি টাকার মালামাল লুট হয়। এ ঘটনায় সকাল থেকেই মন্দিরে পূজা বন্ধ করে দেয় সেবায়েতরা। এদিকে সবুজবাগে একটি বাসায় দুর্ধর্ষ ডাকাতি হয়েছে।

পুলিশ ও সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, পল্লবী আবাসিক এলাকায় প্রয়াত মেজর (অব.) জিয়াউল হকের বাসায় ‘রাত ২টার দিকে মুখোশধারী ৪-৫ জনের ডাকাত ঢোকে। প্রথমে জিয়াউল হকের স্ত্রীকে ঘুম থেকে ডেকে তুলে পিস্তল দেখিয়ে বিছানার চাদর দিয়ে হাত, মুখ ও চোখ বেঁধে ফেলে।

এরপর আলমারি খুলে ৭ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও ৫৫ হাজার টাকা নিয়ে আনুমানিক সোয়া ৩টার দিকে নিচে নেমে যায়। পরে ডাকাত দল নিচতলার গাড়ি রুমের সঙ্গের জানালার গ্রিল কেটে ভোর ৪টার দিকে সরকারদলীয় এমপি (সংরক্ষিত) শাহিদা তারেক দীপ্তির বাসায় ঢোকে।

এমপি দীপ্তি বলেন, চারজনের মুখোশধারী ডাকাত দল ঢুকেই তাকে পিস্তল দেখিয়ে গুলি করে হত্যার ভয় দেখায়। এরপর শাড়ি দিয়ে তার ও স্বামীর হাত, চোখ বাঁধে ও স্কচটেপ মুখে লাগিয়ে দেয়। পরে ডাকাত দল পাশের কক্ষে থাকা মেয়ে মন্দিরা ও কাজের মেয়ে লাইজুকে একইভাবে বেঁধে ফেলে।

তার কাছ থেকে আলমারির চাবি নিয়ে সবাইকে একটি কক্ষে খাটের ওপর কম্বল দিয়ে ঢেকে রাখে। এরপর সব আলমারি খুলে সেখানে থাকা স্বর্ণালঙ্কার ও টাকা নিয়ে পালিয়ে যায় তারা।

দীপ্তির স্বামী তারেক মিন্টু সাংবাদিকদের বলেন, ডাকাত দলের প্রত্যেকে কালো মুখোশ পরা ছিল। তাদের একজন পুরান ঢাকার ভাষা, একজন বিহারি এবং একজন নোয়াখালীর আঞ্চলিক ভাষায় কথা বলেছে।

তিনি বলেন, ডাকাতরা প্রত্যেককে অস্ত্র ঠেকিয়ে কথা না বলতে হুমকি দেয়। মনে হচ্ছিল চিত্কার দিলে তারা গুলি করে হত্যা করত ঘরের লোকজনকে। তিনি বলেন, ডাকাতরা বাসা থেকে প্রায় ৮০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও ৭ লাখ টাকা নিয়ে গেছে।

পল্লবী থানার ওসি ইকবাল হোসেন বলেন, ঘটনাস্থলে ডিবি, সিআইডি, র্যাব ও পুলিশের একাধিক দল পৃথকভাবে তদন্ত শুরু করেছে। দুষ্কৃতকারীদের ধরতে এরই মধ্যে পুলিশের একাধিক দল মাঠে নেমেছে। ওসি বলেন, এটি ডাকাতি নাকি পূর্বশত্রুতা তা ক্ষতিয় দেখা হচ্ছে। এ ঘটনায় সন্দেহজনক একজনকে আটক করা হয়েছে বলে জানান ওসি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন বেলা ১১টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে বলেন, এমপির বাড়িতে ডাকাতির কথা কোনোদিন শুনিনি। এমপির বাড়িতে কারা কী উদ্দেশ্যে ঢুকেছিল তা খুঁজে বের করা হবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ডাকাতি নাকি অন্য কোনো উদ্দেশ্যে এ কাজ করা হয়েছে তাও খুঁজে বের করা হবে। দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অনেক ভালো আছে বলে বরাবরের মতোই দাবি করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন। ডাকাতদের গডফাদারকেও আইনের আওতায় আনা হবে বলে জানান তিনি।

ঢাকেশ্বরী মন্দিরে ২০০ ভরি স্বর্ণ লুট : রাজধানীর বকশীবাজার ঢাকেশ্বরী মন্দিরে গতকাল ভোররাতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি হয়েছে। দুর্বৃত্তরা মন্দিরের মূল প্রবেশপথের তালা ভেঙে দেবীর অঙ্গ থেকে ২০০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, ৬ ভরি রুপা, ৬টি প্রণাম বাক্স ও ৫ লাখ টাকা নিয়ে যায়।

মন্দির কর্তৃপক্ষ জানায়, চুরি যাওয়া মালামালের পরিমাণ প্রায় সোয়া কোটি টাকা। চকবাজার থানার ওসি মোহাম্মদ আলী জানান, ভোররাত ৩টার দিকে একদল দুর্বৃত্ত মন্দিরের প্রবেশপথের তালা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে এবং দেবীর দেহ থেকে মূল্যবান অলঙ্কার এবং টাকা নিয়ে যায় বলে মন্দির কর্তৃপক্ষ তাদের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছে।

প্রতিটি প্রণাম বাক্সের মূল্য ৬ লাখ টাকা। চুরির ঘটনায় সকাল থেকেই মন্দিরে পূজা বন্ধ করে দেয় সেবায়েতরা। উল্লেখ্য, ডিসেম্বরে অজ্ঞাতনামা দুর্বৃত্তরা গুলিস্তান জয়কালী ও সবুজবাগের কালীমন্দির থেকে একই কায়দায় দেবীর দেহ থেকে স্বর্ণালঙ্কার ও দানবাক্স থেকে টাকা চুরি করে নিয়ে যায়।

এসব চুরির ঘটনায় পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। এদিকে মন্দিরে দেবীর গহনা লুটের প্রতিবাদে মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটি সমাবেশ করে। কমিটির সভাপতি বীরেশ চন্দ্র সাহার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় বক্তারা আজ মন্দিরের সামনে এক সমাবেশের আয়োজন করেছেন।

সবুজবাগে ডাকাতি : শনিবার রাতে মধ্য বাসাবোর ১৩৩ নম্বর বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি হয়েছে। ব্যবসায়ী বাসেত তালুকদারের বাসায় ভোর ৪টার দিকে ৬-৭ জনের ডাকাত দল গ্রিল কেটে প্রবেশ করে অস্ত্রের মুখে পরিবারের সদস্যদের জিম্মি করে ৪ লাখ টাকা ও ৭ ভরি স্বর্ণসহ ৫ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।

সবুজবাগ থানার ওসি আসাদুজ্জামান জানান, ডাকাতদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

Share and Enjoy:
  • Print
  • Digg
  • del.icio.us
  • Facebook
  • Yahoo! Buzz
  • Twitter
  • Google Buzz
  • LinkedIn

মন্তব্য করুন