যুক্তরাষ্ট্রে উন্মত্ত বন্দুকধারীর গুলি, ২০স্কুলছাত্রসহ নিহত ২৮

সূত্র:  মার্কিন যুক্তরাষ্টের নিউ ইয়র্ক সিটি থেকে ৬০ মাইল উত্তর-পূর্বের শহর  নিউ টাউনে স্যান্ডি হুক এলিমেন্টারি স্কুলে

যুক্তরাষ্ট্রে উন্মত্ত বন্দুকধারীর গুলি, ২০স্কুলছাত্রসহ নিহত ২৮

যুক্তরাষ্ট্রে উন্মত্ত বন্দুকধারীর গুলি, ২০স্কুলছাত্রসহ নিহত ২৮

এক বন্দুকধারীর গুলিতে ২০ শিশুসহ ২৮ জন নিহত হয়েছে। এদের মধ্যে হামলাকারী ও তার মা রয়েছে বলে জানা গেছে। হামলাকারীর মা ওই স্কুলেরই শিক্ষক।

শুক্রবার বিকেলে বন্দুকসহ বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট পরে প্রায় একশ রাউন্ড গুলি ছোড়ে ওই বন্দুকধারী। এতে ওই ২৮ জন গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান।

প্রত্যক্ষদর্শী এক অভিভাবক জানান, বন্দুকধারীর গুলিতে কানেকটিকাট রাজ্যের ওই স্কুলের অধ্যক্ষ ও মনোচিকিৎসক মারা গেছেন।

ওই অঙ্গরাজ্যের পুলিশের মুখপাত্র লে. পল বেন্স স্থানীয় সময় শুক্রবার বিকেলে জানান, এ পর্যন্ত ২০ প্রাথমিক স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীসহ ২৮ জনের মৃত্যুর খবর তারা পেয়েছেন। বাকি ৭ জন প্রাপ্ত বয়স্ক লোক ও একজন হামলাকারী নিজে। এর মধ্যে ওই স্কুলের কয়েকজন কর্মকর্তাও রয়েছে। এছাড়া একজন শিক্ষক গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন।

লে. পল বেন্স জানান, গুলিবিদ্ধ হয়ে ১৮ শিশু ঘটনাস্থলেই মারা যায় এবং দুজনকে হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যায়। পরে ঘটনাস্থলের পাশে এক ব্যক্তির লাশ পাওয়া যায়। সব মিলিয়ে নিহতের সংখ্যা ২৮ জন।

নিহতদের শরীরে আলাদা কোনো আঘাতের চিহৃ পাওয়া যায়নি বলেও জানান তিনি।

তবে ওই বিদ্যালয়ের একমাত্র বাংলাদেশি ছাত্র মামনুন আহমেদ এ সময় স্কুলে থাকলেও নিরাপদ রয়েছে। সে ওই বিদ্যালয়ে ৬০০ শিক্ষার্থীর মধ্যে প্রথম গ্রেডের ছাত্র।

আইন প্রয়োগকারী সংস্থা সিবিএস নিউজকে জানান, ২০ বছর বয়সী ওই হামলাকারীর নাম অ্যাডাম লানজা। তিনি রায়ান লানজার বড় ভাই। তার মা ওই স্কুলের শিক্ষকতা করতেন।এ ঘটনায় রায়ানকে আটক করেছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী।

ভ্যান্স আরও জানান, হামলাকারীর মৃতদেহ স্কুলের ভেতরে পাওয়া গেছে। তবে তিনি কিভাবে মারা গেলেন তা জানাতে পারেনি। ধারণা করা হচ্ছে তিনি গুলি চালানোর পর আত্মহত্যা করেছেন।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মূলত লানজার লক্ষ্য ছিল তার মা এবং ওই ক্লাসরুম।

সিবিএস নিউজে বলা হয়, পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৩টি বন্দুক উদ্ধার করেছে। এর মধ্যে একটি ২২৩ পিস্তল, একটি গ্লোক ও একটি সিগ সয়ার পিস্তল রয়েছে। এছাড়া তার গাড়িতে একটি রাইফেল পাওয়া গেছে।

প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও কানেকটিকাটের গভর্নর ড্যানিয়েল মেলয় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনার জন্য শোক প্রকাশ করেছেন। শোক জানিয়ে ১৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখার আহ্বান জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

মর্মান্তিক এই ঘটনায় নিহত শিশু ও শিক্ষক-কর্মচারীদের আত্মার শান্তি চেয়ে নিউ টাউনের চার্চগুলোতে সন্ধ্যায় মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়।

এটি কানেকটিকাটের এলিমেন্টরি স্কুলের ইহিহাসে সবচেয়ে বড় ধরনের হত্যাকাণ্ডের ঘটনা এবং দেশটির ইতিহাসে দ্বিতীয় স্কুল হত্যাকাণ্ড। এরআগে ২০০৭ সালে ভার্জিনিয়া টেক এ ৩৩ জনকে হত্যা করা হয়েছিল। তারও আগে ১৯৯৯ সালে কলম্বিয়ান হাই স্কুলে বন্দুকধারীদের গুলিতে শিক্ষকসহ ১২ জন ছাত্র-ছাত্রী নিহত হয়েছিলো।

Share and Enjoy:
  • Print
  • Digg
  • del.icio.us
  • Facebook
  • Yahoo! Buzz
  • Twitter
  • Google Buzz
  • LinkedIn

মন্তব্য করুন